মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৬ জুন ২০২২

‘‘সাউদার্ন পয়েন্ট” অবকাশ যাপন কেন্দ্র শাহপরীরদ্বীপ, টেকনাফ, কক্সবাজার।

 

 ইতিহাসঃ

কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার নাফ নদী এবং বঙ্গোপসাগরের মোহনায় বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে অবস্থিত শাহপরীরদ্বীপ। নদী এবং সাগরের মোহনায় বসে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য একটি উপযুক্ত জায়গা। ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর মাননীয় মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলামবিজিবিএম (বার)এনডিসিপিএসসি শাহপরীরদ্বীপ গোলারচর এলাকা পরিদর্শনে এসে বিজিবি শাহপরীরদ্বীপ বিওপি সংলগ্ন এলাকায় অবকাশ যাপন কেন্দ্র স্থাপনের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেন। ২০২১ সালের প্রারম্ভে অবকাশ যাপন কেন্দ্র নির্মান কাজ শুরু করা হয় এবং ২০২২ সালে নির্মাণ কাজ শেষ হয়।

 

  “সাউর্দান পয়েন্ট” শুভ উদ্বোধনঃ

  ১৭ জানুয়ারী ২০২২ ইং রোজ সোমবার বিজিবি রামু সেক্টরের অধীনস্থ টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) কর্তৃক পরিচালিত সাউদার্ন পয়েন্ট এর শুভ উদ্বোধন করেন বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলামবিজিবিএম (বার)এনডিসিপিএসসি এবং সীপকস এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও মাননীয় মহাপরিচালক মহোদয়ের সহধর্মিনী মিসেস সোমা ইসলাম।

 

  বিবরণঃ

টেকনাফ এর শাহপরীরদ্বীপে সমুদ্র এবং নাফ নদীর মোহনায় অবস্থিত “সাউদার্ন পয়েন্ট” একটি অনিদ্য সুন্দর অবকাশ যাপন কেন্দ্র। যেখান থেকে একসাথে পর্বতের উপর থেকে সূর্যোদয় এবং বিশাল সমুদ্রে সূর্যাস্ত অবলোকন করা যায়। সকলের জন্য আধুনিক এবং মানসম্মত অবকাশ যাপন সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘‘সাউদার্ন পয়েন্ট” অবকাশ যাপন কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধাসহ অবকাশ যাপন কেন্দ্রটিতে রয়েছে ০৭টি কক্ষযার মধ্যে ০৩টি হানিমুন কটেজএক্সিকিউটিভ রুম (সিভিউ) ০৪টিপ্রিমিয়ামস্যুট ০২ টি। প্রতিটি কক্ষের আভিজাত্য এবং স্বকীয়তা বিশেষভাবে চোখে পড়েযা অবকাশ যাপন কেন্দ্রটিতে আগত অতিথিদের কাছে স্বর্গীয় অনুভুতি এনে দেয়।

 

 দুরত্বঃ 

 কক্সবাজার শহর হতে টেকনাফ হয়ে শাহপরীরদ্বীপ ৮৫ কিলোমিটার।

 

 যাতায়তের মাধ্যমঃ   

ঢাকা বা চট্টগ্রাম থেকে সড়ক ও বিমান পথে কক্সবাজারের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে। কক্সবাজারের কলাতলী পয়েন্ট হতে মেরিন ড্রাইভ হয়ে অথবা পুরাতন কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়ক দিয়ে শাহপরীরদ্বীপ যাওয়া যায়। এছাড়াটেকনাফ জেটিঘাট ও দমদমিয়া জাহাজ ঘাট হতে স্পিড বোটে করে শাহপরীরদ্বীপ যাওয়া যায়।

 

সুবিধাদিঃ

      ক।   আলাকার্টে ডাইনিং (Ala Carte Dining)|

      খ।    বীচ সাইড বার বি কিউ।

      গ।    কফি কর্ণার।

      ঘ।    কমন লিভিং স্পেস (Large Common Living Space)|

      ঙ।    পার্কিং।

      চ।    সিসি ক্যামেরা মনিটরিং।

      ছ।    নির্ধারিত ধুমপান এলাকা।

      জ।   কমপ্লিমেন্টারি ব্রেক ফাষ্ট।

      ঝ।    হাউজ কিপিং সার্ভিস।

      ঞ।   কিডস প্লে-জোন।

      ট।    শাটল সার্ভিস (সাউদার্ন পয়েন্টের নিজস্ব স্পীড বোটের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ভাড়া পরিশোধ সাপেক্ষে)।

      ঠ।    হাই স্পীড ওয়াইফাই সার্ভিস।

      ড।    রুম সার্ভিস।

      ঢ।    রিভার ক্রুজ।

      ণ।    জেট স্কী।

      ত।    বীচ বাইক।

      থ।    ক্যাচ অব দি ডে (Sea Fish)|

      দ।    এংগলিং।         

                 

              

 

রুম সমূহের সুবিধাদিঃ

      ক।   ওয়াই ফাই।

      খ।    মিনিবার (ফ্রিজসহ)।

      গ।    এসি।

      ঘ।    হেয়ার ড্রাইয়ার।

      ঙ।    টি/কফি মেকার (প্রয়োজনীয় উপাদানসহ)।

      চ।    টয়লেট এ্যামিনিটিজ।

      ছ।    রুম ও টয়লেট লিলেন (স্যান্ডেলসহ)।

      জ।   বাথ রুম।

      ঝ।    গিজার।

      ঞ।   সোফা/ডিভান।

      ট।    রিডিং ডেস্ক ও চেয়ার।

 

   চেক ইন-চেক আউট সময়ঃ

       ক।   চেক ইনঃ    ১৪০০ ঘটিকার পর।

      খ।    চেক আউচঃ  ১২০০ ঘটিকার মধ্যে।

 

  যোগাযোগ বুকিং এর জন্যঃ

ফোনঃ ০৩৪২৬-৭৫১০৫

মোবাইলঃ০১৭৬৯-৬০১১৩৯     

 

 

 “সাউদার্ন পয়েন্ট” অবকাশ যাপন কেন্দ্রের সচিত্রঃ

 

ঢাকা টু ‘‘সাউদার্ন পয়েন্ট” অবকাশ যাপন কেন্দ্র শাহপরীরদ্বীপ, টেকনাফ, কক্সবাজারঃ

 

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম লিংকঃ


Share with :

Facebook Facebook